উন্নয়ন অনুদান ও কর আদায় আয়ের মূল খাত দেখিয়ে নতুন কোন করারোপ ছাড়াই রংপুর সিটি করপোরেশনের (রসিক) ২০১৭-১৮ অর্থবছরের ১ হাজার ১২ কোটি ৭৮ লাখ ২৯ হাজার টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। যা গত অর্থবছরের চেয়ে ২১১ কোটি ৫৪ লাখ ২২ হাজার টাকা বেশি। গতকাল দুপুরে নগর ভবনের সম্মেলন কক্ষে বাজেট ঘোষণা করে মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু বলেন, বাজেটে নতুনভাবে করারোপ না করে  এর আওতা বাড়ানো হয়েছে।

পঞ্চমবারের মতো ঘোষিত বাজেটে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১ হাজার ১২ কোটি ৭৮ লাখ ২৯ হাজার ৪০৮ টাকা। যার মধ্যে রাজস্ব খাতে প্রারম্ভিক স্থিতি ১৯ কোটি ৭ লাখ ৭৫ হাজার ১৬০ টাকাসহ আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৯০ কোটি ৮৫ লাখ ৫২ হাজার ৬৪ টাকা এবং উন্নয়ন প্রকল্প খাতে প্রারম্ভিক স্থিতি ২২ কোটি ৯২ লাখ ৭৭ হাজার ৩৪৪ টাকাসহ আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৯শ’ ২১ কোটি ৯২ লাখ ৭৭ হাজার ৩৪৪ টাকা। এবারের বাজেটে রাজস্ব খাতের স্থাবর সম্পত্তি বিনিময় ও এফডিআর থেকে সর্বোচ্চ ১৫ কোটি টাকা করে এবং উন্নয়ন সহায়ক খাতে বৈদেশিক সাহায্যপুষ্ঠ বিভিন্ন প্রকল্প থেকে সর্বোচ্চ ৪শ’ কোটি ও সিজিপি (জাইকা) থেকে ২শ’ কোটি টাকা আয় ও  মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ১ হাজার ১২ কোটি ৩০ লাখ ৭০ হাজার ৩৪৪ টাকা। এর মধ্যে রাজস্ব খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৯০ কোটি ৩৭ লাখ ৯৩ হাজার টাকা , উন্নয়ন সহায়ক খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৯শ’ ২১ কোটি ৯২ লাখ ৭৭ হাজার ৩৪৪ টাকা। ব্যয়ের চেয়ে আয় বেশি থাকায় বাজেটে উদ্ধৃত্ত দেখানো হয়েছে ৪৭ লাখ ৫৯ হাজার ৬৪ টাকা।উলে­খ্য, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে রংপুর সিটি কর্পোরেশনের বাজেট ঘোষণা করা হয়েছিল ৮শ’ ১ কোটি ২৪ লাখ ৭ হাজার ৬২০ টাকা।  এর আগে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বাজেট ঘোষণা করা হয় ৬শ’ ৪৫ কোটি ৫ লাখ ৭২ হাজার ৭৮৪ টাকা।

বাজেট পেশকালে মেয়র সাংবাদিকদের জানান, নগরীর ভেতর দিয়ে বয়ে যাওয়া শ্যামাসুন্দরী খালের ওপর উড়াল সড়ক নির্মাণ করা হবে। কুয়েত সরকার ও মধ্যপ্রাচের দেশ থেকে অর্থ সহায়তা পাওয়া যাবে। এ উড়াল সেতুর নকশাও তৈরি করা হয়েছে। আশা করছি এই বছরে কাজ শুরু হবে। চেকপোস্ট থেকে তাজহাট পর্যন্ত সাড়ে ৬ কিলোমিটার দীর্ঘ এই উড়াল সড়ক নির্মাণ করা হলে নগরীর যানজট কমে আসবে। এড়াও হাজিপাড়া থেকে মাহিগঞ্জ পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ আরও একটি সড়ক নির্মাণ করা হবে বলে তিনি জানান।এছাড়াও যানজট নিরসন, বিনোদন কেন্দ্র নির্মাণ, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে সর্বাধিক গুরত্ব দেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।

বাজেট পেশকালে  রংপুর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আকতার হোনেন আজাদ, সচিব আবু সালেহ মো. মুসা জঙ্গি, প্রধান হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা আব্দুল হাকিম, প্যানেল মেয়র, কাউন্সিলরবৃন্দসহ রংপুরে কর্মরর্ত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

There are no comments yet.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked (*).